সাতক্ষীরায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষন করে ভিডিও ধারণ ! আটক-২

প্রকাশিত

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ
সাতক্ষীরা সদরে কথিত প্রেমিকের মাধ্যমে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষন, ভিডিও ধারণ ও আবশেষে র‌্যাবের হাতে আটকের ঘটনা ঘটেছে। আটকৃত ধর্ষকরা হলো, তালা উপজেলার জেঠুয়া গ্রামের মৃত আনছার আলী গাজীর ছেলে আকবর আলী গাজী (৩৮) ও একই উপজেলার জালালপুর গ্রামের হাফিজুল মোড়লের ছেলে হোসাইন মোড়ল (১৮)। উল্লেখ্য গত ২৫ নভেম্বর তারিখে সাতক্ষীরায় ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া কিশোরীকে তার কথিত প্রেমিক হোসাইন মোড়ল (১৮) ও তার সহযোগী আকবর আলী গাজী (৩৮) নামের ব্যক্তি প্রেমের ফাঁদে ফেলিয়া,ফুসলাইয়া বেলা ১১.০০ ঘটিকায় সাতক্ষীরা সদর থানাধীন মন্টু মিয়ার বাগান বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যায়। মন্টু মিয়ার বগান বাড়ি থেকে দুপুর ১৫.৩০ ঘটিকার সময় কথিত প্রেমিক ও তার সহযোগী কিশোরীকে নিয়ে সদরের হাসান আবাসিক হোটেলের একটি কক্ষে প্রবেশ করে। উক্ত কক্ষে কথিত প্রেমিক হোসাইন কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এ সময় আকবর আলী গাজী তার ট্যাবে ধর্ষণ চিত্র ধারণ করে। পরবর্তীতে আকবর আলী গাজী ধারণকৃত ভিডিও চিত্রটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে কিশোরীর সাথে জোর পূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। এই বিষয়ে মঙ্গলবার দুপুর ৩ টায় সাতক্ষীরা র‌্যাব-৬ কার্যালয়ে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সাতক্ষীরা র‌্যাব-৬ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী অধিনায়ক সিপিসি-১, লেঃ বিএন ঃ এম মাহামুদুর রহমান মোল্লা জানান আদ্য ২৬/১১/১৯ তারিখ আনুমানিক ৮.০০ ঘটিকায় র‌্যাব-৬,সাতক্ষীরা (সিপিসি-১) এর একটি আভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে সাতক্ষীরা জেলার সদর থানাধীন পলাশপোল এলাকা হতে ভিকটিম সপ্তম শ্রেণী পড়ুয়া কিশোরীকে উদ্ধার করে এবং ধর্ষণকারী হোসাইন মোড়ল ও আকবর আলী গাজী দ্বয়কে ধর্ষন চিত্র ধারণকৃত ট্যাব সহ আটক করে। এই বিষয়ে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন আছে।