সালমান নয়, বরুণ হলে রাজি ফারিয়া

প্রকাশিত

প্রথম আলোর নিয়মিত আয়োজন ‘আলাপন’-এর তৃতীয় পর্বে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ঢালিউডের এ সময়ের আলোচিত নায়িকা নুসরাত ফারিয়াকে। বুধবার সন্ধ্যায় প্রথম আলো কার্যালয়ে হাজির হন তিনি। ঢাকার রাস্তায় দীর্ঘ যানজটে পড়ে নির্ধারিত সময়ে পৌঁছাতে না পারায় শুরুতেই দুঃখ প্রকাশ করেন ফারিয়া। কথা ছিল, আলাপ হবে ৩০ মিনিট। কিন্তু আড্ডা জমে যাওয়ায় শেষমেশ তা ঘণ্টা খানেক পর্যন্ত চলে।

সরাসরি এই আলাপনে বেশ প্রাণবন্ত ছিলেন ফারিয়া। প্রথম আলোর বিনোদন বিভাগের নিজস্ব প্রতিবেদক মনজুর কাদেরের উপস্থাপনায় নিজের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা, বিয়ে, অভিনয়জীবন সম্পর্কে খোলামনে বলে গেছেন এই অভিনেত্রী।

আলাপের শুরুতেই নিজের সম্পর্কে ফারিয়া একটি মজার তথ্য দেন। বলেন, ফিটনেস ধরে রাখতে গত বছর খাওয়ার ব্যাপারে বেশ সজাগ ছিলেন। এক কাপ কফি খেতেও দশবার ভেবেছেন। তবে এ বছর পেট পুরে খাবেন বলে ঠিক করেছেন।

নুসরাত ফারিয়ার নতুন বছর নাকি শুরু হয়েছে পিৎজা খেয়ে। ২০১৭ সাল ফারিয়ার জন্য কেমন ছিল? ‘গত বছর আমার জন্য ছিল ব্লকবাস্টার। ওই বছরে আমার তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। যেমন কাজ করতে চেয়েছি, তেমনটাই করতে পেরেছি। নিজের কাজের মধ্যে নতুনত্ব আনতে পেরেছি। তাই বছরটি নিয়ে আমি খুব হ্যাপি।’ বলছিলেন ফারিয়া।

শিগগিরই মুক্তি পাবে নুসরাত ফারিয়ার নতুন সিনেমা ‘ইন্সপেক্টর নটি কে’। ছবিতে তাঁর বিপরীতে দেখা যাবে কলকাতার নায়ক জিৎকে। যৌথ প্রযোজনার এই সিনেমার বাংলাদেশ অংশের প্রযোজক জাজ মাল্টিমিডিয়া। ফারিয়ার কাছে প্রশ্ন ছিল, ‘জাজের বাইরে অন্য কোনো প্রযোজকের ছবিতে এখন পর্যন্ত কেন দেখা যায়নি তাঁকে?’ বুদ্ধিমতী ফারিয়া হাসতে হাসতে বলেন, ‘অন্য কোনো প্রযোজক আমার কাছে আসে না। সবাই আমাকে খুব দামি ভাবে।’ ভালো ছবির প্রস্তাব পেলে আর ব্যাটে বলে মিলে গেলে নাকি যেকোনো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেই কাজ করবেন