সিলেট থেকে আ.লীগের হ্যাটট্রিক জয়ের মিশন শুরু

প্রকাশিত

বিশেষ প্রতিবেদক,সিলেটঃ সিলেট নামটি মনের কোণে উঁকি দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই চোখের সামনে চলে আসে পাহাড়, টিলা, ঝরনা, হাওর, নদী, বন-বনানীর এক সবুজ প্রান্তর। আর তার বুকে ঢেউ খেলানো ঘন সবুজে আচ্ছ্বাদিত সাজানো-গোছানো চা-বাগানের অনুপম দৃশ্য।

সিলেটের জনপদকে নানা নামে অভিহিত করা হয়ে থাকে। এই জনপদের অপর এক নাম ‘দুটি পাতা একটি কুঁড়ি’র দেশ। সেই দেশে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে হ্যাটট্রিক জয়ের মিশনে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর আগে দুটি পাতা একটি কুঁড়ির দেশখ্যাত সিলেটবাসীকে বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তরের একঝাঁপি উন্নয়ন উপহার দেবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী জনসভাকে ঘিরে পুরো নগরীতে এখন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। দলের নেতাকর্মীদের আশা, জনসমাগমের দিক দিয়ে সিলেটের জনসভা অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে নতুন নজির সৃষ্টি করবে।

মঙ্গলবার সিলেট থাকবে নৌকার সমর্থকদের দখলে। জনসভায় বিপুল লোকসমাগম জনারণ্য সৃষ্টি করে শেখ হাসিনাকে আগামী নির্বাচনে নৌকার বিজয়বার্তা দিয়ে অঙ্গীকার করবে সিলেটবাসী। এমন প্রত্যাশা ও আশাবাদ ব্যক্ত করছেন নেতারা।

তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর এ সফর নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত সিলেটের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। জনসভায় যোগ দিতে সিলেটের বিভিন্ন জেলা থেকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আসবেন।

সিলেট জেলার নেতারা জানান, শেখ হাসিনার সফরকে ঘিরে পুরো প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে সিলেটবাসী প্রস্তুত। মর্যাদাপূর্ণ এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতির সিলেট সফর আগামী জাতীয় ও সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সিলেটের জনসভায় নৌকায় ভোট চাওয়ার জন্য নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দেবেন তিনি। এমনকি অতীতের মতো সিলেটের সব আসন আওয়ামী লীগকে উপহার দেওয়ার জন্য সিলেটবাসীর প্রতি আহ্বান জানাবেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর সোয়া ১২টা পর্যন্ত হযরত শাহজালাল (রহ.), হযরত শাহপরাণ (রহ.) ও সিলেটের প্রথম মুসলমান গাজী বুরহান উদ্দিনের (রহ.) মাজার জিয়ারত করবেন। এরপর দুপুর ১২টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত সার্কিট হাউজে অবস্থান করবেন তিনি। দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে সিলেট আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে দেখা যাবে তাকে। তার বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স (এসএসএফ) গত কয়েকদিন ধরে এসব স্থান পরিদর্শন করেছে। সোমবার থেকে সভাস্থলে প্রবশাধিকার সীমিত করা হয়েছে।

জনসভায় বক্তব্য দেওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটের বেশকিছু উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। পাশাপাশি সিলেটের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে নতুন কোনো ঘোষণা আসবে, সেই প্রত্যাশা সাধারণের মধ্যে।

মাজার জিয়ারত ও জনসভার মধ্য দিয়ে সিলেট থেকেই শুরু হয়ে থাকে সব দলের নির্বাচনী প্রচারণা। সরকার গঠনের বিষয়টি মাথায় রেখে সার্বিক দিক বিবেচনা করে এ আসনে প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। সেই ধারাবাহিকতায় একাদশ সংসদ নির্বাচন ও সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে এবারও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সিলেট থেকেই প্রচারণা শুরু করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবরই পুণ্যভূমি সিলেট থেকে মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণার কাজ শুরু করেন। এমনটাই জানালেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

সিলেটের জনসভার মূল উদ্দেশ্য নির্বাচনকেন্দ্রিক বলেও জানান সিলেট মহানগরের নেতারা। তারা জানান, এই সফরকে ঘিরে সিলেটে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আগামী নির্বাচনে দলের জয় সুনিশ্চিত করতে প্রতিটি অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীকে সব ভেদাভেদ ভুলে দলের জন্য নিরলসভাবে কাজ করতে হবে। তাই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ফের আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর জনসভা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

মঙ্গলবার সকালে হযরত শাহজালাল (র.),  হযরত শাহপরাণ (র.) ও হযরত গাজী বোরহান উদ্দিন (রহ.)-এর মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শুরু করবেন শেখ হাসিনা।

এরপর হযরত গাজী বোরহান উদ্দিন (রহ.) মাজার উন্নয়ন, মহিলা এবাদতখানা নির্মাণ, মাজারের সৌন্দর্যবর্ধন এবং মাজারের যাতায়াতের প্রধান রাস্তা ২ কিমি প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন, সিলেট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছয়তলা ভিতবিশিষ্ট ও চারতলা নতুন একাডেমিক-কাম-প্রশাসনিক ভবন, সিলেট জেলার পিরিজপুরে একটি সার পরীক্ষাগার ও গবেষণাগার ভবন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় জেলা অফিস, সিলেট বিভাগীয় ও জেলা এনএসআই কার্যালয় ভবন, সিলেট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, জাকিগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, সিলেট সিটি করপোরেশনের নগর ভবন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১২তলা ভিত্তিবিশিষ্ট নগর ভবনের বেইজমেন্ট ফ্লোরসহ ৫মতলা পর্যন্ত ভবন, সিলেট সিটি করপোরেশনের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত বাবুছড়ায় আরসিসি ইউ টাইপ ড্রেন নির্মাণ কাজ, জালালাবাদ রাস্তা সম্প্রসারণ ও এসফল্ট দ্বারা উন্নয়ন কাজ, সিলেট-সুনামগঞ্জ বাইপাস সড়ক উন্নয়ন, মৌলভীবাজার-রাজনগর-ফেঞ্চুগঞ্জ-সিলেট সড়ক এবং রশিদপুর-বিশ্বনাথ-লামাকাজী সড়কে ওভারলেপ কাজ, সিলেট-গোপালগঞ্জ-চারখাই-জকিগঞ্জ সড়ক এবং দরবস্ত-কানাইঘাট-শাহাবাগ সড়কে মজবুতীকরণসহ ওভারলেপ কাজ, ঢাকা (কাঁচপুর)-ভৈরব-জগদীশপুর-শায়েস্তাগঞ্জ-সিলেট-তামাবিল-জাফলং সড়কের (সিলেট-শেরপুর অংশ) মজবুতীকরণসহ ওভারলেপ কাজ এবং সড়কের শেরপুর টোল প্লাজা অংশে রিজিড পেভমেন্ট নির্মাণ কাজ, দক্ষিণ জকিগঞ্জ উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কামালবাজার ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, সিলেট সিটি করপোরেশনের অন্তর্গত কানাইঘাট সড়ক, কুইটুকে তিন তলাবিশিষ্ট প্রাইমারি হেলথ কেয়ার সেন্টার ভবন উদ্বোধন করবেন।

আর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারের মহিলা এবাদতখানা ও অন্যান্য উন্নয়ন কার্যক্রম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম ফজিলাতুননেছা মুজিব হল নির্মাণ, গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ ভবন ও হলরুম নির্মাণ, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র হোস্টেল ভবন নির্মাণ, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের ছাত্রী হোস্টেল ভবন নির্মাণ, সিলেটে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতাল নির্মাণ, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালের অভ্যন্তরে একটি নার্সিং হোস্টেল নির্মাণ, সিলেট পুলিশ লাইনে একটি এসএমপি ব্যারাক ভবন নির্মাণ, সিলেট পুলিশ লাইনে একটি অস্ত্রাগার নির্মাণ, এসএমপি’র কোতোয়ালি মডেল থানার কম্পাউন্ডে ডরমেটরি (১০ তলা ভিতবিশিষ্ট চারতলা) ভবন নির্মাণ, সিলেট জেলাধীন তামাবিল ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট (টাইপ-২ অনুযায়ী ছয়তলা ভিতবিশিষ্ট তিনতলা) ভবন নির্মাণ, সিলেটস্থ লালবাজারে রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) পুলিশ লাইন নির্মাণ, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হোস্টেল নির্মাণ এবং সম্প্রসারণ (বালিকা-৬ ইউনিট, বালক-৫ ইউনিট এবং সম্প্রসারণ-২০ ইউনিট) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সিলেটে হোস্টেল ভবন নির্মাণ, বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বিভাগীয় পরিচালক (পরিবার পরিকল্পনা) ও জেলা পরিবার পরিকল্পনা, সিলেট-এর অফিস ভবন নির্মাণ, সিলেট-গোলাপগঞ্জ-চারখাই-জকিগঞ্জ মহাসড়কের ৬৫ কিলোমিটার উন্নয়ন, গোলাপগঞ্জ-ঢাকা দক্ষিণ-ভাদেশ্বর মহাসড়ক ও চারখাই-শেওলা-বিয়ানীবাজার-বারইগ্রাম মহাসড়কের ৯.৬০ কিমি উন্নয়ন, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ভবনের চারতলা থেকে ১০ তলা ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ।

এরপর দুপুর ৩টায় সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগদান করবেন শেখ হাসিনা।