সেনবাগে অভিমান করে ৬ষ্ঠ শ্রেণির স্কুল ছাত্রীর অাত্মহত্যা।

প্রকাশিত

মোঃ ফখর উদ্দিন,নোয়াখালী প্রতিনিধি:
সেনবাগের নবীপুর ইউপির গোপালপুর নানার বাড়ী থেকে নুসরাত জাহান নাবিলা (১১) নামের এক স্কুল ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। নাবিলা ওই গ্রামের  আজগর আলী বাড়ীর প্রবাসী মহি উদ্দিনের একমাত্র কন্যা। সে বীজবাগ এনকে উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী।
স্হানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আমিন উল্যা বিএসসি জানান, সোমবার সকালে নানীর সাথে বেড়াতে যেতে বায়না ধরে নাবিলা। তার মা জাহানারা বেগম যেতে বারণ করে স্কুলে যাবার জন্য বকাঝকা করে। নানী চলে যাবার পর  রাগে ক্ষোভে নাবিলা ঘরের ভুতুরের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলতে থাকে। ১০ টার দিকে মা জাহানারা ঘরে ঢুকে মেয়ের নিথর দেহ ঝুলতে দেখে চিৎকার দিলে শত শত নারী পুরুষ জড়ো হয় ওই বাড়ীতে। খবর পেয়ে বিকেলে সেনবাগ থানার ওসি (তদন্ত)  আবদুল আলী পাটোয়ারী ও এসআই আলমগীর হোসেন ঘটনাস্হল থেকে লাশ উদ্ধার করেন।পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ  নোয়াখালী হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
স্হানীয় সূত্রে জানা গেছে, নাবিলার দাদার বাড়ী দাগনভূঁঞার নয়নপুরে। তারা গোপালপুর নানার বাড়ীতে স্বপরিবারে বসবাস করছে। এগারো বছর বয়সী স্কুল ছাত্রী  নানীর সাথে অভিমান করে আত্নহননের বিষয়টি নিয়ে ওই এলাকায় গুঞ্জন রয়েছে।
সেনবাগ থানার ওসি মো: মঈন উদ্দিন আহমেদ রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।