সেনবাগে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় স্কুল ছাত্রীর শ্লীলতাহানী।

প্রকাশিত

মোঃ ফখর উদ্দিন,নোয়াখালী-
নোয়াখালীর সেনবাগে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় বীজবাগ এন.কে উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর এক ছাত্রীর (১৬) শ্লীলতাহানী ও তার উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। আহত স্কুল ছাত্রীকে রোববার বিকেলে সেনবাগ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে বালিয়াকান্দী গ্রামের আবু ইউছুপের মেয়ে। শনিবার বিকেলে স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে স্থানীয় রিয়াদের দোকানের সামনে পৌঁছা মাত্রই স্থানীয় বখাটে সন্ত্রাসী শহিদুল ইসলাম সোহান ও তার দুই সহযোগি স্বজল ও কামরুল স্কুল ছাত্রীর পথরোধ করে তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সোহান স্কুল ছাত্রীর ওলনা,স্কুলড্রেস,স্ক্যাপ টেনে হিচড়ে ছিড়ে ফেলে শ্লীলতাহানীসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে।এ সময় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে। ইভটিজার শহিদুল ইসলাম সোহান (১৮) দক্ষিণ বালিয়াকান্দী গ্রামের সিরাজ উল্যার পুত্র। সে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের উপর হামলা ও আওয়ামীলীগ নেতা নিজাম উদ্দিন সাজুর দায়েরকৃত মামলার চার্জসিটভুক্ত আসামী। এ ঘটনায় সেনবাগ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আহত স্কুল ছাত্রী জানায়,গত এক বছর যাবৎ স্কুলে আসা যাওয়ার পথে উল্লেখিত বখাটেরা ইভটিজিং সহ নানা অশ্লীল আচরণ করছে।এর প্রতিবাদ করায় তারা শ্লীলতাহানী ও হামলার ঘটনা ঘটায়।
সেনবাগ থানার ওসি মোঃ মঈন উদ্দিন আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,মামলার প্রস্তুতি চলছে। অল্প সময়ের মধ্যেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হবে।