হাতিয়াতে বসত ঘরে একা পেয়ে বাকপ্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণ,যুবক কারাগারে

প্রকাশিত
 নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালীর হাতিয়াতে বাকপ্রতিবন্ধী যুবতীকে (২৫) ধর্ষণের ঘটনায় এক যুবককে আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।আটককৃত মো. শরীফ উদ্দিন (২৭) সে উপজেলার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের মদিনা গ্রামের মো.ছালা উদ্দিনের ছেলে।শনিবার (১ আগস্ট) দুপুর ২টার দিকে আটককৃত আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে, একই দিন সকালে তাকে উপজেলার মদিনা গ্রাম থেকে আটক করে নিঝুমদ্বীপ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ।
মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,নির্যাতিত যুবতী ধর্ষক শরীফের বাড়ির পাশের দূর সম্পর্কের আত্মীয় হয়। এ সুবাধে ধর্ষক শরীফ ইশারা ইঙ্গিতে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাকপ্রতিবন্ধী যুবতীকে দীর্ঘদিন থেকে দিকে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।গত (২৯ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে শরীফ ওই বাকপ্রতিবন্ধী যুবতীকে তার বসত ঘরে একা পেয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে ভিকটিমের গোঙানির শব্দ পেয়ে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে ধর্ষক পালিয়ে যায়। পরে এ ঘটনায় মৌখিক ভাবে অভিযোগ পেয়ে শনিবার সকালে তাকে মদিনা গ্রাম থেকে আটক করে পুলিশ।
হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় ভিকটিমের মামা বাদী হয়ে শনিবার সকালে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে হাতিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় দুপুরে অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।