৩০ নারীকে হত্যা করে খেয়েছে এই দম্পতি!

প্রকাশিত

মানুষ যখন মানুষের মাংস খায় তখন তাকে নরখাদক বলা হয়। এমনই এক নরখাদক দম্পতি নাতালিয়া ও দিমিত্রিক। গত বছর রাশিয়ার নাতালিয়া বাকসশিভা ও তার স্বামী দিমিত্রিকে চিহ্নিত করা হয় নরখাদক হিসেবে। ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে তাদের নরহত্যার দায়ে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের পর থেকেই তাদের অস্বাভাবিক আচরণ নজরে পড়ে তদন্তকারীদের। তখন একটি মনোবিদ দলকে নির্দেশ দেওয়া হয় তাদের পরীক্ষা করার জন্য। আর পরীক্ষা শেষে মনোবিদরা সেই যুগলকে ‘‌মানসিক বিকারগ্রস্ত নরখাদক’‌ হিসেবে চিহ্নিত করেন।

তার বক্তব্যে উঠে আসে ভয়ানক সব তথ্য। জানা যায়, নাতালিয়া ও দিমিত্রিক প্রায় ৩০ জন নারীকে হত্যা করেন। কেবল হত্যা করেই থামেননি, তাদের কেটে কেটে খেয়েছেন! তাদের এমন কাজের জন্য তাদের মধ্যে কোনও অনুতাপ বা অনুশোচনাও নেই।

৩০ জন্য নারীকে হত্যা করে খেয়ে ফেললেও পুলিশের সন্দেহের তালিকা থেকে কয়েজ যোজন দূরে ছিলেন এই দম্পতি। এলিনা ভারুশিভা নামে এক তরুণী নিখোঁজ হওয়ার পরে তদন্ত শুরু করেছিল পুলিশ। পরে নাতালিয়ার বাড়ির পেছনের একটি আবর্জনার স্তূপ থেকে এলিনার মোবাইল ফোন খুঁজে পান একদল নির্মাণকর্মী যারা সেখানে একটি বাড়ি নির্মাণের কাজে নিয়োজিত ছিলেন।

মোবাইল ফোনটি পুলিশের কাছে জমা দিলে তাদের সন্দেহ হয়। আর সন্দেহের জেরে তাদের গ্রেফতার করা হলে পরবর্তীতে জানা যায় ভয়ানক সব তথ্য।