শ্রীপুরে নিজের মেয়ে চাকরি পাইনি বলে স্কুলের নিয়োগ বন্ধ করলেন সভাপতি!

প্রকাশিত

শ্রীপুর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ

গাজীপুরের শ্রীপুরে একটি স্কুলে নিজের মেয়ের চাকরি না হওয়ায় ওই স্কুলের নিয়োগ বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্কুলটিরই পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি বোরহান উদ্দিন শেখের বিরুদ্ধে ।
১৭ নভেম্বর রবিবার উপজেলার গোসিংগা ইউনিয়নের খোজেখানী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
স্কুল কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত খোজেখানী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বর্তমানে ছাত্রীর সংখ্যা-২০৬ জন। গত ৩০ মে ২০১৯ তারিখে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় এ স্কুলে শূন্য পদে একজন অফিস সহকারী কাম- কম্পিউটার অপারেটর নিয়োগের বিজ্ঞাপন দেয়া হয়। নির্দিষ্ট সময়ে ১৪ টি আবেদন জমা হলে যাচাই বাছাই করে ১২ প্রার্থীকে লিখিত ও মৌখিক পরিক্ষার জন্য চুড়ান্ত চিঠি দেয়া হয়। সেখানে উল্লেখ ছিল – ১৭ নভেম্বর রবিবার নিয়োগ সংক্রান্ত সকল প্রক্রিয়া সম্পুর্ন করে নিয়োগ দেয়া হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন জানান, সভাপতি তার নিজের মেয়ে তাহমিনাকে নিয়োগ দিতে না পেরে আকস্মিকভাবে নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত করে দিয়েছে। নিয়োগ দেয়ার দিনই অন্যান্য প্রার্থীরা বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারে বলেও জানান তিনি।

বিষয়টি সম্পর্কে প্রথমে কথা বলতে না চাইলেও গোপনীয়তার নিশ্চয়তা দেয়ার পর খোজেখানী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ বজলুর রহমান জানান, গতকাল রাতে সভাপতি হঠাৎ করে আমাকে বললেন, নিয়োগ আপাতত বন্ধ। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে যোগাযোগ করে পরবর্তীতে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হবে। তাই পূর্ব নির্ধারিত আজকের নিয়োগ কর্যক্রম বাতিল করা হয়েছে।

নিজের মেয়ের চাকরি এখন আর প্রয়োজন নেই জানিয়ে খোজেখনী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সাবেক যুবলীগ সভাপতি বোরহান উদ্দিন শেখ মুঠোফোন জানান,এ স্কুলে আমি ৫ম বারের মত সভাপতির দায়িত্ব পালন করছি এবং স্কুলটির বিভিন্ন উন্নয়নে আমার অবদান রয়েছে। এ নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আমার মেয়ে একজন প্রার্থী হিসেবে আবেদন করেছিল। বিষয়টি নিয়ে মানুষ নানা কথা বলে আমার মান সম্মান নষ্ট করতে চাইছে। তাই শিক্ষা অফিসারের সাথে কথা বলে নিয়োগ প্রক্রিয়াটি আপাতত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, নিয়োগ প্রক্রিয়াটি সাময়িক বন্ধ রাখতে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবেদন করায় তা বন্ধ রাখা হয়েছে। এছাড়াও স্কুলটির সভাপতির নিজের মেয়ের নিয়োগ জটিলতা বিষয়ে অবগত নন বলেও জানান তিনি।