কাটা পেঁয়াজ কতটা বিষাক্ত?

প্রকাশিত

লাইফস্টাইল ডেস্ক-পেঁয়াজ কাটতে গিয়ে চোখের জল ফেলেননি এমন মানুষ বিরল। অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে এখন পেঁয়াজ কিনতে গিয়েও ক্রেতাকে চোখের জল ফেলতে হচ্ছে। কারণ পেঁয়াজের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি। তারপরও পেঁয়াজ ছাড়া তরকারি আমরা ভাবতে পারি না। পারি কি?
পেঁয়াজ খাওয়ার জন্য বিখ্যাত লিবিয়ার মানুষ। দেশটিতে পেঁয়াজের পেছনে মাথাপিছু বার্ষিক খরচ ৬৬.৮ পাউন্ড। অবশ্য পেঁয়াজ শুধু খাবার স্বাদযুক্ত করে না, এর স্বাস্থ্যগত উপকারীতাও রয়েছে। সবদিক বিবেচনা করে পেঁয়াজ নিয়ে কিছু কথা শোনা যায় যেগুলো যুগ যুগ ধরে চেপে বসে আছে আমাদের বিশ্বাসে। যেমন কাটা পেঁয়াজ বিষাক্ত!
আপনি একটি পেঁয়াজ কেটে অর্ধেক ব্যবহার করেছেন, বাকিটুকু আগামীকাল ব্যবহারের জন্য রেখে দিতে চাইছেন। কিন্তু আপনি শুনেছেন যে, কাটা পেঁয়াজ রেখে দিলে তাতে ব্যাকটেরিয়া জন্মে বিষাক্ত হয়ে উঠতে পারে। এই ব্যাকটেরিয়া পেটের সমস্যা এমনকি খাদ্যে বিষক্রিয়াও সৃষ্টি করতে পারে। যে কারণে অনেকেই পেঁয়াজ অর্ধেক কেটে রাখেন না।
এই ধারণা ভুল! ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটির সায়েন্স অ্যান্ড সোসাইটি অফিসের তথ্যমতে, এটি একটি ভুল ধারণা বিশেষ করে শহরবাসীর জন্য, যা এড়িয়ে যাওয়া দরকার। কাটা পেঁয়াজে ব্যাকটেরিয়া দূষণের ঝুঁকি নেই। এই জাতীয় পেঁয়াজ থেকে আপনার পেটে সমস্যা বা খাবার বিষাক্ত হবে এমন কোনো আশঙ্কাও নেই। সুতরাং পেঁয়াজের এই ঊর্ধ্বগতির বাজারে এক পেঁয়াজ প্রয়োজনে শত টুকরো করে খেতেও কোনো সমস্যা নেই।
এই ফাঁকে আরেকটি তথ্য জানিয়ে রাখি- বর্তমানে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি পেঁয়াজ উৎপাদন হয় চীনে। দেশটিতে পেঁয়াজের বার্ষিক গড় উৎপাদন দাঁড়িয়েছে ২০,৫০৭,৭৫৯ মেট্রিক টন। ভারত ১৩,৩৭২,১০০ মেট্রিক টন নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। আমেরিকা বার্ষিক ৩,৩২০,৮৭০ মেট্রিক টন নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। তারপরও সেই দেশের জনগণ কাটা পেঁয়াজ দিব্যি খাচ্ছেন।