রৌমারী সীমান্তে বিএসএফ চোরাকারবারি ভেবে ভারতীয়কে গুলি করে হত্যা!

প্রকাশিত

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি-
ভারতীয় নাগরিককে চোরাকারবারি ভেবে গুলি করে হত্যা করে বিএসএফ। শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলা দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের ইটালুকান্দা সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ ক্যাম্প কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠকে এ তথ্য জানায় বিএসএফ।
বিজিবি ৩৫ ব্যাটালিয়নের দাঁতভাঙ্গা কোম্পানি (বিজিবি সাহেবের আলগা বিওপি ক্যাম্প দাঁতভাঙ্গা কোম্পানি কমান্ডারের অধীনস্ত’) কমান্ডার সুবেদার মুজিবুর রহমান একথা জানিয়েছেন।
শুক্রবার (০৬ ডিসেম্বর) সকাল ৭টার দিকে দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের সাহেবের আলগা বর্ডার আউট পোস্ট (বিওপি) এলাকায় আন্তর্জাতিক পিলার ১০৫২ (২এস) এর কাছে ভারতীয় অংশে এ ঘটনা ঘটে। পরে দুপুরে বিএসএফ সদস্যরা মরদেহ ভেতরে নিয়ে যান। নিহত ব্যক্তি হলেন, ভারতের আসাম রাজ্যের হাটশিংমারী জেলার সুখচর থানার শান্তিপুর গ্রামের মৃত মুনসুর আলীর পুত্র আব্দুস সবুর (৩১)।

মুজিবুর রহমান জানান, শুক্রবার সকালে বিএসএফের গুলিতে ওই ভারতীয় নাগরিক নিহত হয়। এরপর ক্যাম্প কমান্ডার পর্যায়ে বৈঠক হয়।
তিনি বলেন, ‘বৈঠকে বিএসএফ প্রতিনিধি এসি লাক্সি জানান, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে চোরাকারবারিরা বিভিন্ন সময় বিএসএফ সদস্যদের উত্ত্যক্ত করে আসছে। শুক্রবার সকালে ওই ভারতীয় নাগরিক সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ার কাছে গিয়ে বিএসএফ সদস্যদের উত্ত্যক্তের চেষ্টা করলে বিএসএফ তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে ওই ভারতীয় নাগরিক গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থ’লেই নিহত হন। পরে বিএসএফ সদস্যরা তার লাশ ভারতে নিয়ে যান।’

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শুক্রবার সকালে ভারতীয় ওই নাগরিক ইটালুকান্দা সীমান্তের চুলকানির খাল নামক স্থান থেকে অবৈধভাবে ভারতীয় সীমান্তে প্রবেশ করছিলেন। এসময় জিরো লাইনের দেড়শ’ গজ ভারতীয় অংশে কাঁটাতারের কাছে পৌঁছালে বিএসএফ তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।
স্থানীয় আরো জানান, সবুর গরু ব্যবসার লেনদেন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন। পরে একই পথে ভারতে ফেরার সময় বিএসএফ তাকে বাংলাদেশি ভেবে গুলি করে। এতে ঘটনাস্থ’লেই নিহত হন ওই ভারতীয় নাগরিক।

বিজিবি ৩৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল এসএম আজাদ বলেন, ‘নিহত ব্যক্তি ভারতীয় নাগরিক। তিনি জিরো লাইন থেকে ভারতের দেড়শ’ গজ ভেতরে কাঁটাতারের কাছে গুলিবিদ্ধ হন। আমরা বিষয়টি নিয়ে বিএসএফের সঙ্গে পতাকা বৈঠক করেছি।’