টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধ, যুবক নিহত

প্রকাশিত

অনলাইন ডেস্ক- কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ইমাম হোসেন (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) ভোরে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা নাফ নদসংলগ্ন কেওড়া বাগান এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

নিহত ইমাম হোসেন টেকনাফের হ্নীলার জাদিমুরা এলাকার আবদুস সালামের ছেলে। বিজিবির দাবি, তিনি মাদক কারবারি ছিলেন। ঘটনাস্থল থেকে এক লাখ ২০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি দেশি বন্দুক, কার্তুজ ও ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে বলে বিজিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. ফয়সাল হাসান খানের ভাষ্যমতে, ভোরে হ্নীলা জাদিমুরা এলাকার নাফ নদের পাড়ের কেওড়া বাগানের কাছে এক ব্যক্তিকে ঘোরাঘুরি করতে দেখেন বিজিবির দমদমিয়া বিওপির টহল সদস্যরা। কিছুক্ষণ তারা মিয়ানমার থেকে আসা একটি নৌকাকে কেওড়া বাগানে ঢুকতে দেখেন। এ সময় অপেক্ষামান ব্যক্তিটি নৌকার দিকে এগিয়ে যান। তবে বিজিবির উপস্থিতি টের পেয়ে নৌকা থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়া হয়। এতে বিজিবির দুই সদস্য আহত হন। বিজিবিও পাল্টা গুলি ছুড়লে উভয়পক্ষের মধ্যে প্রায় ৭-৮ মিনিট ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে।

একপর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে এক ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন বিজিবি সদস্যরা। তাকে উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকের পরামর্শ মতো তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এর আগে হাসপাতালে নেওয়ার পথেই ইমাম হোসেন তার পরিচয় জানান বলে উল্লেখ করেন বিজিবি অধিনায়ক।

ঘটনাস্থল থেকে এক লাখ ২০ হাজার ইয়াবা, দেশি বন্দুক ও দুই রাউন্ড কার্তুজ এবং একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি করেন বিজিবির এই কর্মকর্তা।