ফরিদপুরের মুক্তিযোদ্ধা মুনছুর আলী ব্যাপারী বাচঁতে চান

প্রকাশিত

ফরিদপুর প্রতিনিধি :
বিজয়ের মাস চলছে আর সেই বিজয়ের মাসে রনাঙ্গনের এক মুক্তিযোদ্ধা মুনছুর আলী বেঁচে থাকার জন্য সকলের কাছে করুন আকুতি জানিয়েছেন। আর এই সময়ে তাকে বেচেঁ থাকতে হলে প্রয়োজন অনেক টাকার। টাকার অভাবে আজ তিনি ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় দিন কাটছে। টাকার অভাবের কারনে করতে পারছে না তার পরিবার অপারেশন। আর এই বিপদে তার পরিবার এবং তিনি তার পাশে সহৃদয় ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সহচর বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনছুর আলী ব্যাপারী(৯০) পায়ে আঘাত জনিত সমস্যা নিয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন ২৩ নভেম্বর শনিবার। এরপর তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। এরপর থেকে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
তার পুত্র শাহিদ মিয়া জানান, গত ২৩ নভেম্বর শনিবার বিকেলে আমার আব্বা ঘড় থেকে বের হয়ে বাড়ির সামনে প্রতিবেশী লাল মিয়ার কাছে যাচ্ছিলেন। এসময় পা পিছলে গিয়ে তিনি পড়ে যান। পরে তাকে দ্রুত ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এরপর হাসপাতালে এক্সরে করলে দেখা যায় তার পায়ের হাড় ভেঙ্গে দু-ভাগ গেছে। সেখানে কিছুদিন থাকার পর তাকে ঢাকা নিয়ে আসা হয় উন্নত চিকিৎসার জন্য।
মুনছুর আলী ব্যাপারী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নির্দেশে সেই যে যুদ্ধ শুরু করেছি আজও আমি জীবন সংগ্রামে সেই যুদ্ধ করেই চলছি। তিনি সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন যাতে দ্রুত সুস্থ্য হয়ে সকলের মাঝে ফিরতে পারেন। এছাড়া তার অপারেশন করতে অনেক টাকার প্রয়োজন সেই টাকা দিয়ে সকলে কিছুটা সাহায্য সহযোগিতা করবেন এই আশার ব্যক্ত করেন।
উল্লেখ্য মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ফরিদপুর সদর উপজেলার শিবরামপুর, খলিলপুর, ইশানগোপালপুর, বসন্তুপুর ও গোয়ালন্দ এলাকায় তিনি দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে আগত শরনার্থীদের থাকা খাওয়াসহ বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেন। এছাড়া ওই এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের নিরাপত্তা দেয়ার কাজে তার ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে।