দেশবাসীকে বিজয়ের আন্তরিক শুভেচ্ছা -তুহিন সারোয়ার

প্রকাশিত

তুহিন সারোয়ার- বিজয় দিবস এলেই আনন্দের সাথে সাথে মন কিছুটা খারাপ হয়ে যায়. ছোট বেলার কথা মনে পরে, যখন রাস্তার মোড়ে মোড়ে গলা ছেড়ে গান গাইতাম ” এক সাগর রক্তের বিনিময়ে” জয় বাংলা বাংলার জয় ” কিংবা সব কটা জানালা খুলে দাওনা”.

কি ই বা বুঝতাম দেশপ্রেমের তখন, কে আমার মনে এনে দিয়েছিল সেই ক্রোধের গান ” মুক্তিযোদ্ধা নাই কি দেশে নাই কি ছেলে বাংলা মার” এ প্রশ্ন গুলোর উত্তর অজানা. একেই হয়তো দেশপ্রেম বলে.এক সময় যখন গলার সমস্ত জোর দিয়ে গাইতাম ” জামাত শিবির ধরে ধরে পায়ের তলায় পিশ্যা মার”, অতটুকু বয়সে সমস্ত শরিরে জন্ম নিতো ঘৃণার আগুন..

যখন একটু একটু বুঝতে শুরু করেছিলাম, তখন ” আলোর মিছিল” আর জীবন থেকে নেয়া” এই দুটি সিনেমা ছাড়া আর কোন সিনেমা টিভিতে দেখতে পেতাম না..কারন সব সিনেমা জুরে থাকতো জয় বাংলা জয় বংগবন্ধু এই স্লোগান ..কতটুকু আর কাঁটছাঁট করবে..তাই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস রয়ে গেলো তেলের কুপি তে জ্বালানো অন্ধকার ঘরে..নিষিদ্ধ জিনিসে মানুষের আগ্রহ বেশি, বোঝেনা আমাদের মাথা মোটা সমাজপতিরা..তাদের এই মনোভাবেই মুক্তিযুদ্ধের বই প্রীতি শুরু ..জানার চেস্টা শুরু, এখন পর্যন্ত চলছে..

এই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস যতদিন প্রত্যেক টা বাংগালীর মনেপ্রাণে থাকবে, রাজাকার এর বংশধর, তাদের মদতদাতা, ইতিহাস বিকৃতি কারি দের কেউ ক্ষমা করবে না..যারা দুর্নীতিবাজ তারা প্রত্যেকে আমার কাছে রাজাকারের বংশধর..আর দুর্নীতিতে ছেয়ে আছে আমার বাংলা, তাই বিজয় দিবসেও মন খারাপ হয়ে যায়..

পথের ক্লান্তি ভুলে স্নেহ ভরা কোলে তব মাগো বলো কবে শীতল হবো?

কতদূর আর কতদূর বলো মা? চ্যানেল সিক্স এর পাঠক এবং দেশবাসী সবাইকে বিজয় দিবসের অনেক অনেক শুভেচ্ছা আর বিজয় দিবসের এই প্রত্যয় আমাদের প্রতিটি দিনের প্রত্যয় হোক..