নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বসত বাড়ীতে হামলা ভাংচুর করেছে দুবৃর্ত্তরা

প্রকাশিত

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াকালীর সুবর্ণচরে জায়গা জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বসত বাড়ীতে ব্যাপক হামলা ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে ৫ নং চরজুবিলী ইউনিয়নের দক্ষিণ কচ্ছপিয়া গ্রামের এনাম মাষ্টারের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে । এনাম বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সাগরিকার ম্যানেজার।

স্থানীয়রা জানান, রাত দেড়টার দিকে এনামের স্ত্রীর চিৎকারে ডাকাত পড়েছে ভেবে এগিয়ে এম দেখি বসত ঘরের পেছনে ব্যাপক ভাংচুর এবং বেশ কিছু ফলজ গাছ কর্তন করা। ব্যবহারিত টয়লেট, গভীর নলকূপ এবং পানির ট্যাংক উপড়ে পেলেছে।

এনামের স্ত্রী কামরুন নাহার বেগম সালেহা অভিযোগ করে বলেন,রাতে খাবার খেয়ে বাড়িতে থাকা আমার এক সন্তান নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ি। গভীর রাতে বাহিরে শব্দ শুনতে পেয়ে বের হতেই একই গ্রামের প্রতিবেশী বেলায়েত হোসেন(৬০), বেলায়েত হোসেনের পুত্র পারভেজ(২৯), ইয়াছিন আরাফাত, মুকবুল আহমেদের পুত্র আব্দুর রব আনোয়ারীসহ অজ্ঞাত ২০/২৫ জনের এক দল যুবক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমাকে জিম্মি করে এ হামলা চালায়। তিনি বলেন, হামলাকারীদের মধ্যে ৪ জনকে চিনতে পেরেছি। আমার স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে পূর্বের জায়গা জমি নিয়ে বিরোধের জেরে তারা এ হামলা করে।
তিনি শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন,আমার স্বামী চাকুরীর সুবাধে বাহিরে থাকায় তার উপর হামলার ঘটনা ঘটে নি নইলে তার উপরও হামলার ঘটনা ঘটত।

অভিযুক্ত পারভেজ এবং ইয়াছিন আরাফাতের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, “আমরা ঘটনার সম্পর্কে কিছুই জানিনা এ ঘটনায় আমরা জড়িত নই, আমাদের ফাঁসানোর জন্য ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

চরজব্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাহেদ উদ্দিন বলেন, ঘটনাটি শুনেছি এবং একজন এএসআইকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে, তিনি কিছু ঘটনান্থলে গিয়ে কিছু আলামত সংগ্রহ করেছে তবে ঘটনার পর থেকে থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।