মুখ দিয়ে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে সিরাজগঞ্জের ঈশ্বর

প্রকাশিত

সোহাগ হাসান-
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় খন্দকার আব্দুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরিক্ষার্থী ঈশ্বর। ছোটবেলা সে তার বাবা-মাকে হারিয়েছে। জন্মের পর থেকে তার হাত দুটো অবশ। পা দুটোতেও শক্তি কম। কোনোভাবে আস্তে আস্তে হাঁটতে পারে। খাতায় লেখার সময় পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব থাকা ব্যক্তিরা খাতার পৃষ্ঠা উল্টিয়ে দেন। হাতে শক্তি না থাকায় একা একা খাতার পৃষ্টা উল্টাতে পারেনা। মুখ দিয়ে লিখে পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। একই ভাবে এবার এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে শারীরিক প্রতিবন্ধী ঈশ্বর কুমার।উল্লাপাড়া উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের মৃত প্রফুল্ল চন্দ্র সূত্রধরের ছেলে ঈশ্বর।এদিকে রোববার উল্লাপাড়া এইচটি ইমাম গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে ঈশ্বর কুমারের বিকল্প ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। তাকে আলাদা একটি টেবিল সামনে দিয়ে পরীক্ষার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। বেশ দ্রুত লিখতে পারে সে। মুখ দিয়ে কলমের পেছনের অংশ কামড়ে খাতায় লেখে। কথা হয় ঈশ্বরের সাথে তিনি বলেন, বাবার নিজস্ব কোন জায়গা জমি নেই। অন্যের জমিতে ঘর উঠিয়ে বসবাস করতো। বাবা-মায়ের মৃত্যুর পর একই গ্রামে বসবাসকারী তার বোন রিভা রানী সূত্রধর তাকে লালন পালন করছেন। তারা তিন বোন দুই ভাই। ভাইদের মধ্যে সে ছোট। বড় ভাই বিয়ে করে আলাদা থাকে। বোনদের বিয়ে হয়ে গেছে। শুধু বড় বোনই এখন তাকে মায়ের মতো লালন পালন করছে। মানুষের সাহায্য সহযোগিতায় চলছে তার পড়ালেখা।খন্দকার আব্দুল মজিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক ইউসুফ আলী মন্টু বলেন, ষষ্ঠ শ্রেণী থেকেই তার লেখাপড়ায় নানাভাবে সহযোগিতা দিয়ে আসছেন। স্কুলের প্রধান শিক্ষক নিখিল চন্দ্র ঘোষ স্কুলে পড়াশুনা ফ্রি করে দিয়েছেন, তার কাছ থেকে কোনো বেতন নেওয়া হয় না বলেও তিনি জানান।