শ্রীমঙ্গলে অপরিকল্পিত ড্রেন নির্মান বন্ধ করলো পৌর কর্তৃপক্ষ

প্রকাশিত
প্রিতম পাল, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে পৌর কর্তৃপক্ষের বাধার মুখে শহরের ভানুগাছ সড়কে জেলা পরিষদের অপরিকল্পিতভাবে চলমান ড্রেন নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে গেছে।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে জেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম ও শ্রীমঙ্গল পৌর ভবনের মাঝামাঝি ভানুগাছ সড়কে জেলা পরিষদের কয়েকজন নির্মাণ শ্রমিক ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু করে। সেসময় পৌরসভার সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলি ও কাউন্সিলররা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কাজ বন্ধ করে দেন। পরে নির্মাণ শ্রমিকরা কাজ বন্ধ করে চলে যায়।
এদিকে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা কর্তৃপক্ষের দাবি, এই সড়কে অপরিকল্পিতভাবে ড্রেন নির্মাণ হলে শহরের সৌন্দর্য বর্ধনে নেয়া মাষ্টার প্লান ক্ষতিগ্রস্থ হবে। তাছাড়া এটি সড়ক ও জনপদের মালিকানাধীন ও পৌরসভার তত্ত্বাবধানে রয়েছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পাঠানো মাষ্টার প্লানে যে স্থানে জনসাধারণের চলাচলে ফুটপাথ নির্মাণের কথা সেখানে জেলা পরিষদ ড্রেন নির্মাণে উদ্যোগ নেয়। এ কারণে তারা বাধা দিয়েছেন বলে জানান।
শ্রীমঙ্গল পৌরসভার প্রকৌশলি জহিরুল ইসলাম বলেন, পৌরসভার অনুমতি ছাড়া সেখানে জেলা পরিষদের নতুন করে ড্রেন নির্মাণের সুযোগ নেই। তাছাড়া সড়কের পাশে পৌরসভার সচল ড্রেনেজ ব্যবস্থা রয়েছে।
শ্রীমঙ্গল পৌরসভার মেয়র মহসিন মিয়া (মধু) বলেন, পৌরসভার অভ্যন্তরে নাগরিকদের পৌরসেবা প্রদানে অবকাঠামোগত নগর উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব একমাত্র পৌরসভার। ফলে জেলা পরিষদ কিভাবে পৌরসভাকে না জানিয়ে অবকাঠামো উন্নয়ন কাজ করে তা আমার জানা নেই।
এব্যাপারে জেলা পরিষদের সহকারি প্রকৌশলী শামসুল আলম বলেন, জেলা পরিষদের টেন্ডার মোতাবেক সেখানে একটি ড্রেন নির্মাণের কথা রয়েছে। তবে ড্রেন নির্মাণে পৌরসভা বা সওজের কোন অনুমতি নেয়া হয়নি বলে তিনি জানান।
এদিকে মৌলভীবাজার সড়ক ও জনপদের প্রধান প্রকৌশলি মো. শাহরিয়ার আলম বলেন, জেলা পরিষদ থেকে সেখানে ড্রেন নির্মাণের বিষয়ে আমি অবগত নই। তারপরেও এ বিষয়ে আমি খোঁজ খবর নেব।